1. admin@dailydigantor.com : admin :
নিউমোনিয়ার প্রকোপ বাড়ছে – দৈনিক দিগন্তর
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৮:৪৩ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৮:৪৩ পূর্বাহ্ন

নিউমোনিয়ার প্রকোপ বাড়ছে

দৈনিক দিগন্তর ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২৩

 

স্টাফ রিপোর্টার।।শীতকাল এলেই শুরু হয় নিউমোনিয়ার প্রকোপ। ৬০ থেকে ৬৫ বছরের বেশি বয়স হলে অথবা ০৪ বছরের কমবয়সি শিশুদের ক্ষেত্রে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার ভয় বেশি। ফুসফুসে সংক্রমণের কারণে এই রোগ হয়। অল্প থেকে ক্রমশ গুরুতর আকার ধারণ করতে পারে নিউমোনিয়া।

আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ আইসিডিডিআর,বি-র এক গবেষণা থেকে জানা যায়, বাংলাদেশে নিউমোনিয়ায় বছরে মারা যাচ্ছে প্রায় ২৪ হাজার শিশু। প্রতি ঘণ্টায় আনুমানিক দুই থেকে তিনটি শিশুর মৃত্যু হচ্ছে। পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের মোট মৃত্যুর ২৪ শতাংশই হয় নিউমোনিয়ায়।
শিশু হাসপাতালের দেওয়া তথ্যে জানা যায়, অক্টোবর থেকে ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত শিশুরা হাসপাতালে আসছে। নভেম্বর শিশু ওয়ার্ডে রোগীর চাপ বেশ বেড়েছে। বিশেষ করে নিউমোনিয়া, ব্রংকাইটিস, শ্বাসকষ্ট, অ্যাজমা, হাঁপানি, সর্দি-জ¦র ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে হাসপাতালে আসছেন অভিভাবকরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, ঋতু পরিবর্তনের এই সময়ে শুধু বহির্বিভাগেই নয়, জরুরি বিভাগেও নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। প্রতিদিন গড়ে ৪শ থেকে ৫শ রোগী হাসপাতালের বহির্বিভাগে আসছেন, যা কিছুদিন আগেও ছিল অর্ধেক।
শিশুরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শীতকালে জীবাণুর দ্রুত সংখ্যাবৃদ্ধি হয় বলে এই সময়ে নিউমোনিয়ার প্রকোপে বেশি মানুষ আক্রান্ত হন। নিউমোনিয়া মূলত তিন ধরনের। কমিউনিটি অ্যাকুয়ার্ড নিউমোনিয়া (ক্যাপ), হসপিটাল অ্যাকুয়ার্ড নিউমোনিয়া (হ্যাপ) আর ভেন্টিলেটর অ্যাকুয়ার্ড নিউমোনিয়া (ভ্যাপ)।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সিওপিডি, সিস্টিক ফাইব্রোসিস, হাঁপানি ও অ্যালার্জির ধাত আছে যে শিশুদের, তাদের নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার ভয় বেশি। নিউমোনিয়ার প্রাথমিক লক্ষণ হল জ্বর। তার সঙ্গে কাশি। পাশাপাশি, শ্বাসকষ্টও থাকে। সংক্রমণ যত বাড়ে, শ্বাসকষ্টও বাড়তে থাকে। বুকে ব্যথা হতে পারে। তবে বুকের ব্যথার এই ধরন একটু আলাদা। সাধারণত, গভীর শ্বাস নেওয়ার সময়ে এই বুকের ব্যথা হবে। ফুসফুসের প্রদাহের কারণে এই ব্যথা হয়। এ ছাড়া, মাথায় যন্ত্রণা, ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়া, খাওয়ায় অনীহা, সারাক্ষণ বমি বমি ভাবও আনুষঙ্গিক লক্ষণের মধ্যে পড়ে। নিউমোনিয়ার প্রথম দিকে সাধারণ জ্বর, সর্দি এবং সঙ্গে কাশির উপসর্গই দেখা যায়। তবে কিছু দিন পর থেকেই এই উপসর্গগুলির প্রকোপ বাড়তে থাকে। দেখা যায়, জ্বর কিছুতেই কমছে না। সঙ্গে শ্বাসকষ্ট বাড়ছে। কাশিও একই ভাবে বাড়ছে। বুকের ব্যথাও থাকছে।
শিশু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. আবিদ হোসেন মোল্লা বলেন, গত পাঁচ বছরে প্রতি হাজারে প্রায় সাত দশমিক চার শতাংশ নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে নিউমোনিয়ায়। প্রতি বছর আনুমানিক ছয় লাখ ৭৭ হাজার শিশু নিউমোনিয়া নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে নতুন রোগী আনুমানিক ৪০ লাখ।
Facebook Comments Box
সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা